তাহলে কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক। প্রথমেই আমাদের জানতে হবে ক্যাপাসিটর কি এবং এর কাজ কি?? ইলেকট্রনিক্স কাজে ক্যাপাসিটর খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

*** ক্যাপাসিটর বা ধারক একটি বৈদ্যুতিক যন্ত্রাংশ। দুইটি পরিবাহী পাতের মাঝে একটি ডাই-ইলেকট্রিক অপরিবাহী পদার্থ নিয়ে এটি গঠিত। ডাই-ইলেকট্রিক এমন একটি পদার্থ যা বৈদ্যুতিক ক্ষেত্রের প্রভাবে পোলারায়িত হতে পারে। এ পদার্থ হতে পারে বা কাচ, সিরামিক, প্লাস্টিক বা শুধুই বাতাস।

ক্যাপাসিটর মূলত চার্জ ধরে রাখার কাজে ব্যবহৃত হয়। ধারক সার্কিটে বিদ্যুৎ সংরক্ষণের আধার হিসেবে কাজ করে। ক্ষেত্রবিশেষে এটা উচ্চ ও নিম্ন তরঙ্গের জন্য ছাকনি (filter)হিসেবে কাজ করে। পূর্বে একে কনডেনসার বলে ডাকা হত। কারণ, প্রথমে বিজ্ঞানীগণ ভেবেছিলেন, ধারকে তড়িৎ একেবারে জমাট বেঁধে যায়। কিন্তু পরে জানা যায় যে, এখানে তড়িৎ জমে যায় না। শুধুমাত্র আধান সঞ্চিত হয় এবং প্রয়োজনানুযায়ী ব্যবহার করা যায়।

***ক্যাপাসিটরের সংকেতঃ C

***ক্যাপাসিটরের এককঃ ফ্যারাড/মাইক্রোফ্যারাড/পিকো ফ্যারাড

নিচের চিত্রটি দেখতে পারেনঃ

অনেক সময় কিছু ছোট সাইজের ক্যাপাসিটরের গায়ে কিছু কোড যেমনঃ 101, 102, 222, 105 ইত্যাদি দেখা যায়। এগুলো আসলে সিরামিক ক্যাপাসিটর। নম্বর দেখে এসব ক্যাপাসিটরের মান বের করার একটি সূত্র নিয়ে একটু আলোচনা না করলেই নয়ঃ

আমি যথেষ্ট সহজ করে উপস্থাপন করতে চেষ্টা করেছি। আর এসব জানার ফলে আমাদের পরবর্তীতে সার্কিট তৈরির কাজ সহজ হবে।

আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন। আজ এ পর্যন্তই। বুঝতে সমস্যা হলে টিউমেন্ট করে জানাবেন। আগামী পর্বে আমরা ইলেকট্রনিক্স এর বহুল ব্যবহৃত কম্পোনেন্ট ও এদের প্রতীক সম্পর্কে আলোচনা করব। সেই পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন। কারো কোনো প্রশ্ন থাকলে টিউমেন্ট বক্সে জানাবেন। আমি  ইলেকট্রনিক্স এর উপর একজন ছাত্র। আমি সাধ্যমত সকল বিষয় সহজ ভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করব। ভাল থাকেবেন সবাই। আসসালামু-আলাইকুম।