বাকি কাজে যাওয়ার আগে আমরা দেখে নেই Master-k PLC তে কি কি মেমরি এরিয়া আছে। মেমরি এরিয়া নিয়ে আমাদের পরবর্তীতে অনেক কাজ করতে হবে।
মেমরি এরিয়া হলো বিভিন্ন বিট ও বাইট নিয়ে গঠিত অংশ যাতে নানা ধরনের ইনপুট/আউটপুট ভ্যালু(1/0) অথবা ডাটা সংরক্ষিত থাকে।
প্রথমেই বলে রাখি এই বর্ণনা শুধুমাত্র এই ব্র্যান্ডের PLC এর জন্য এবং সকল বিস্তারিত বর্ণনা ডাটাশিট এ পাওয়া যাবে।
নিচে নানা ধরণের মেমরি ডিভাইসের বর্ণনা দেওয়া হলোঃ
Input/output area: P
P এরিয়া এর সাথে আমরা ইতিমধ্যে পরিচিত হয়েছি ইনপুট আউটপুট নিয়ে কাজ করতে গিয়ে। Master-k তে PLC হচ্ছে ইনপুট আউটপুট ডিভাইস। বাইরের কোন সেন্সর বা অন্যকিছু থেকে ইনপুট নিতে এবং PLC থেকে আউটপুট দিতে P এরিয়া ব্যবহার করা হয়।
P এরিয়া এর মতো আরেক ধরণের ডিভাইস আছে যাকে M(auxiliary relay) এরিয়া বলে। M এরিয়া এর সাথে বাইরের কোন পিনের কানেকশন নেই, প্রোগ্রামিং এর নানা সুবিধার জন্য একে ব্যবহার করা হয়।
Keep Relay: K
K এরিয়া অনেকটা M এরিয়া এর মতোই কাজ করে তবে পার্থক্য হলো সে তার State ধরে রাখে, মানে PLC এর পাওয়ার চলে যাবার পরে আবার চালু হলে আগের কন্ডিশন থেকে শুরু করে।
Data Register: D
D এরিয়া নিউমেরিক ডাটা স্টোর করার জন্য ব্যবহার করা হয়। D এরিয়া ১৬ বিটের হয়।
Special Relay: F
F এরিয়া ব্যবহার করা হয় কিছু বিশেষ ধরণের Relay এর জন্য। এই Relay গুলো Read-only . নানা ধরণের Special Relay আছে, কোনটা ১ সেকেন্ড পর পর পালস দেয়,কোনটা আবার দুই সেকেন্ড ইত্যাদি নানা ধরণের কাজের জন্য Special Relay আছে। পূর্ণ বর্ণনা ডাটাশিট এর Appendix এ পাওয়া যাবে।

Timer

তৃতীয় লেকচারে আমরা দেখেছিলাম Conventional Timer কিভাবে কাজ করে। এই লেকচারে আমরা দেখবো PLC তে কিভাবে টাইমার প্রোগ্রাম করতে হয়।
কিছু জিনিস মনে রাখতে হবে:

১. PLC K সিরিজে দুই ধরণের টাইমার(10ms and 100ms) আছে।

২. পাঁচ ধরণের টাইমার কমান্ড আছে- TON,TOFF,TMR,TMON এবং TRTG।

৩. টাইমার এর মান 1 হবে যখন বর্তমান ভ্যালু সেট করে দেওয়া ভ্যালুতে পৌঁছাবে,অথবা প্রথমেই 1 হবে এবং সেট করে দেওয়া টাইম পরে ০ হবে।

৪. টাইমার এর জন্য ব্যবহৃত রেজিস্টার পয়েন্ট: T000-T192(Type-100ms).

এবার আমরা একটি প্রোগ্রাম করবো যাতে P0 তে ইনপুট দেওয়ার সাথে সাথে টাইমার চালু হবে এবং নির্দিষ্ট সময় পরে P41 অন হবে।

 

কাজের ধাপ:

১. প্রথমে আগে দেখানো উপায়ে KGL_Win সফটওয়্যার খুলি।

২.উপর থেকে Normally Open Contact select করে programming area তে ক্লিক করি। Popup Window তে P0 লেখি।

৩. এবার Applied Instruction select করে P0 এর ডানে রেখে ক্লিক করি।যে window আসবে তাতে TON t0 20 লেখি।

চিত্র: উপরে লিখলে নানা ধরণের কমান্ডের একটা লিস্ট বের হবে,নিচে Valid Device অংশে দেওয়া আছে কি কি অপশন যুক্ত করতে হবে।

৪. প্রথম Instruction এর নিচে Open Contact নিয়ে তাতে T0 লিখতে হবে। এখানে T0 হচ্ছে মেমরি ডিভাইস যাতে টাইমার অন নাকি অফ সেটা দেওয়া থাকে।

৫. T0 থেকে ইনপুট নিয়ে আউটপুট কয়েল P40 অন করতে হবে।

৬. তারপর Applied Instruction থেকে END দিয়ে program শেষ করতে হবে।
তারপর Program টা দেখতে হবে অনেকটা এ রকম:

এখন KGL-win এর Download button ক্লিক করলেই প্রোগ্রামটি PLC তে ডাউনলোড হয়ে চলতে আরম্ভ করবে।

P0 পিনে ইনপুট দিলে টাইমারের মান বাড়তে থাকবে এবং তা ২০ এ পৌঁছালে T0 এর মান 1 হবে। দ্বিতীয় লাইন অনুযায়ী T0 এর মান 1 হলে তা P40 কে 1 করবে।
একইভাবে বাকি ফাংশন যেমন TOFF TMR TRTG ইত্যাদি দেখতে হবে। এগুলার একেকটার কাজ একেকরকম।

COUNTER

মনে রাখতে হবে:

১. চার ধরণের কমান্ড আছে- CTU,CTD,CTUD,CTR। এদের মধ্যে কোনটা ০ থেকে গোনা শুরু করে, আবার কোনটা সেটিং করে দেওয়া ভ্যালু থেকে গুনতে গুনতে ০ আসে।

২. ইনপুট পালস এর রাইজিং এজ এ কাউন্টার গুনতে আরম্ভ করে এবং যখন তা সেট করে দেওয়া মানে পৌছায় বা সেট করে দেওয়া মান থেকে ০ তে পৌছায় তখন আউটপুট পালস 1 করে।

৩. যদি RESET পালস দেওয়া হয় তবে সে তার আউটপুট কন্টাক্ট off করে এবং এবং কাউন্টিং ভ্যালুকে আগের প্রাথমিক কন্ডিশনে ফেরত নিয়ে আসে।

এবার আমরা একটি প্রোগ্রাম করবো যাতে P0 তে ইনপুট দেওয়ার সাথে সাথে কাউন্টারের মান এক করে বাড়বে এবং নির্দিষ্ট মানে পৌছার পরে P41 অন হবে।

কাজের ধাপ:

১. প্রথমে আগে দেখানো উপায়ে KGL_Win সফটওয়্যার খুলি।

২.উপর থেকে Normally Open Contact select করে programming area তে ক্লিক করি। Popup Window তে P0 লেখি।

৩. এবার Applied Instruction select করে P0 এর ডানে রেখে ক্লিক করি।যে window আসবে তাতে CTU C0 5 লেখি।অর্থাৎ সে 0 থেকে গুনতে আরম্ভ করবে এবং গুনার মান ৫ এ আসার পর C0 কে 1 করে দিবে।

৪. কাউন্টারে আরেকটা পিন রাখতে হবে Reset এর জন্য, এখানে আমরা P01 ইনপুট পিনকে Reset এর সাথে লাগিয়ে দিবো আমরা ।

৫. এরপর C00  থেকে ইনপুট নিয়ে আউটপুট কয়েল P40 অন করতে হবে।

৬. তারপর Applied Instruction থেকে END দিয়ে program শেষ করতে হবে।
তারপর Program টা দেখতে হবে অনেকটা এ রকম:

এখন KGL-win এর Download button ক্লিক করলেই প্রোগ্রামটি PLC তে ডাউনলোড হয়ে চলতে আরম্ভ করবে।

P0 ইনপুট পিনে একবার করে পালস দিলেই কাউন্টারের মান বাড়তে থাকবে এবং এর মান 5 এ পৌছার পরে C00 কে 1 করে দিবে যা P40 কে অন করবে।

P01 পিনটা রিসেট পিন হিসেবে ব্যবহার করা হবে।

High Speed Counter

High Speed Counter ব্যবহৃত হয় প্রিসিশন কাজের ক্ষেত্রে, যেমন পজিশনিং কন্ট্রোল, খুব দ্রুতগতিতে ঘূর্ণায়মান কোন বস্তুর গতি এবং নানা পরিমাপে।আমরা দেখবো Master-K এর High speed counter ফিচার দিয়ে কিভাবে এনকোডার ব্যবহার করা যায়।

এর আগে এনকোডার সম্পর্কে একটু জানি।চিত্রঃনানা ধরণের এনকোডারের মধ্যে একটির মডেল।

চিত্র: এনকোডারের নানা ব্যবহার।

আমরা যে এনকোডার নিয়ে কাজ করবো তাতে চারটা তার ব্যবহার করবো।এর দুই তার দিয়ে +,গ্রাউন্ড এবং বাকি দুই তার হচ্ছে A Phase, B Phase. A এবং B Phase দিয়ে Encoder পালস আউটপুট দেয়। পালস এর টাইমিং ডায়াগ্রাম হলোঃ

প্রোগ্রামিংটা দেখি:

প্রথমে বামের মেন্যু থেকে Parameter সিলেক্ট করি। একটা উইন্ডো বের হবে সেখান থেকে HSC Ch0 ট্যাবে ক্লিক করি। মনে রাখতে হবে আমরা হাইস্পিড কাউন্টারের জন্য ইনপুট হিসেবে P0 থেকে পিন ব্যবহার করবো।

আমরা ট্যাব থেকে বিভিন্ন ভ্যালু কনফিগার করবো।

প্রথম Counter Format

এখানে সেটিং করে দেওয়া যায় কাউন্টার টি কি ধরণের হবে মানে লিনিয়ার কাউন্টার (কাউন্ট করতেই থাকবে,করতেই থাকবে) নাকি রিং কাউন্টার( নির্দিষ্ট সময় পর আবার শুরু হবে) হবে।

তারপর Counter Mode

মানে আমরা দুইটা Phase ব্যবহার করবো না একটা ব্যবহার করবো বা অন্যকিছু করবো।

তারপর Additional Function

এখানে বাকি নানা ধরণের ভ্যালু সেট করে দেওয়া হয়।

আমরা কাউন্টার ফরম্যাট Leaner এবং কাউন্টার মোড 1 phase Operation select করে বেরিয়ে আসি।

প্রোগ্রামিং এরিয়াতে আমরা প্রথমে Normally Open Contact নিয়ে ক্লিক করি,নিচে Flag সিলেক্ট করি,সেখানে অনেকগুলা Read-only রেজিস্টার চলে আসবে যা বিভিন্ন ফাংশন করে,যেমন কোনটা ১০ সেকেন্ড পর পর পালস দেয়,কোনটা সবসময় অন থাকে(F10) ইত্যাদি। আমরা F10 সিলেক্ট করবো। তারপর এর ডানদিকে Applied Instruction ক্লিক করি। সেখানে লেখি HSCST 0 30 D00, এরমানে হচ্ছে


HSCST                        High Speed counter

                     0                           ০ থেকে গোনা আরম্ভ করব         30                          ৩০ পর্যন্ত গুনব

                         D00                        গুনা মান গুলো D00 এরিয়াতে রাখবে

হাইস্পিড কাউন্টার Channel 0 এর কাউন্টের মান সেট করে দেওয়া মানে পৌঁছালে সে F170 কে On করে দেয়।

 চিত্র: High Speed Counter এর প্রোগ্রাম।

এর পর কানেকশন দেওয়া এনকোডার ঘুরাতে থাকলে গুনার মান বাড়তে থাকবে এবং ৩০ এ পৌঁছালে F0170 on করবে যা P40 কে ক্লোজ করবে।