মাইক্রোকম্পিউটার কম্পর্কে কিছু কথা

মাইক্রোকম্পিউটারের গঠন সম্পর্কে সংক্ষিপ্তভাবে একটু আলোচনা করা যাক। মাইক্রোকম্পিউটারের মৌলিক গঠনকে নিম্নবর্ণিত উপকরণ সমূহে বিভক্ত করা যায়

  • Microprocessor ( প্রধান নিয়ন্ত্রক)
  • RAM (অস্থায়ী মেমরী)
  • Timing and Control Unit ( অপারেশন সমূহ সঠিক সময়ে সম্পাদনের কাজ করে)
  • Input Port (Keyboard, mouse, Microphone ইত্যাদি সংযোগ করার জন্য যে পোর্ট সমূহ ব্যবহৃত হয়)
  • Output Port ( Monitor, Speaker, Printer ইত্যাদি সংযোগ করার জন্য যে পোর্ট সমূহ ব্যবহৃত হয় )
  • ROM বা EEPROM (স্থায়ী মেমরী)

মাইক্রোকম্পিউটারের ব্রেইন বলা হয় মাইক্রোপ্রসেসরকে। আর একটু বিস্তারিতভাবে বলতে হলে, বলতে হয় মাইক্রোপ্রসেসর হচ্ছে মাল্টিপারপাস প্রোগ্রামেবল ইন্ট্রিগেটেড ডিভাইস। শুধু  মাইক্রোপ্রসেসর দিয়ে কোন কাজ হয় না।  মাইক্রোপ্রসেসরকে কার্য সম্পাদন করার জন্য Input Data, RAM,ROM  এবং Timing and Control Unit এর উপর নির্ভর করতে হয়, অার ফলাফল Output Port ব্যবহার করে প্রদর্শন করতে হয়। তাহলে মাইক্রোকন্ট্রোলার কি?

মাইক্রোকন্ট্রোলার, সিঙ্গেল চিপ মাইক্রোকম্পিউটার

মাইক্রোকন্ট্রোলারকে বলা হয় সিঙ্গেল চিপ মাইক্রোকম্পিউটার। সিঙ্গেল চিপ মাইক্রোকম্পিউটার দেখতে একটা সাধারণ আইসি চিপের অনুরূপ। অনেকেই হয়তবা অবাক হচ্ছেন। কম্পিউটারের একটা মাদারবোর্ড খুললেই দেখা যায় , অসংখ্য আইসি চিপ, আর আমি কিনা বলছি একটা চিপই একটা কম্পিউটার । এবার আসুন তাহলে প্রমান করা যাক।

বাজারে বিভিন্ন ধরণের মাইক্রোকন্ট্রোলার কিনতে পাওয়া যায় । এর মধ্যে Microchip এর তৈরি PIC সিরিজের মাইক্রোকন্ট্রোলার এবং Atmel এর তৈরি AVR সিরিজের মাইক্রোকন্ট্রোলার খুবই জনপ্রিয়।

PIC সিরিজের অন্যতম জনপ্রিয় একটা মাইক্রোকন্ট্রোলার হচ্ছে PIC16F877। PIC16F877 এর ফিচার সমূহ এক নজর দেখলেই আমরা প্রমান করতে পারবো যে মাইক্রোকন্ট্রোলারই হচ্ছে  সিঙ্গেল চিপ মাইক্রোকম্পিউটার।

PIC16F877 এর ফিচার সমূহ

  • Flash Program Memory:  8k words of 14 bits
  • Data SRAM: 368 bytes
  • Data EEPROM: 256 bytes
  • Maximum Operating speed: 20 MHz
  • Wide operating voltage range (2.0 – 5.56)volts.
  • Industrial temperature range (-40° to +85°C)
  • 33 Input/Output pins
  • 5 Input/Output ports
  • 35 single-word instructions
  • 10-bit, 8-channel A/D Converter
  • 3 timers.
  • Programmable code protection.

PIC16F877 এর ফিচার সমূহ থেকে আমরা দেখতে পাচ্ছি যে একটা PIC16F877 এর অভ্যন্তরে একটা মাইক্রোপ্রসেসর আছে যা সর্বোচ্চ 20MHz ক্লক স্পিডে কাজ করতে পারে, এতে 8k words প্রোগ্রাম মেমরী , 368 bytes RAM, 256 bytes EEPROM , 5 Input/Output ports এবং 10-bit, 8-channel A/D Converter রয়েছে, যা সবই একটা  মাইক্রোকম্পিউটারের মৌলিক গঠনে থাকে। আমরা যে মাইক্রোকম্পিউটার ব্যবহার করি তাতে এগুলো আলাদা আলাদা অনেক বেশি পরিমানে থাকে আর মাইক্রোকন্ট্রোলারে এগুলো অল্প পরিমানে থাকে।

মাইক্রোকন্ট্রোলার গুরু [পর্ব-০১] এর জন্য করণীয়

আজকে আপনাদের জন্য কিছু সহজ প্রশ্ন থাকছে । আপনারা টিউমেন্ট করে প্রশ্ন গুলোর সঠিক উত্তর প্রদানের চেষ্টা করুন।

  • ১. সিঙ্গেল চিপ মাইক্রোকম্পিউটার আসলে কি?
  • ২. জনপ্রিয় একটা মাইক্রোকন্ট্রোলারের নাম কি?
  • ৩.PIC16F877 সর্বোচ্চ কত ক্লক স্পিডে কাজ করতে পারে?

এরই মাধ্যমে টেকটিউনসে শুরু হয়ে গেল মাইক্রোকন্ট্রোলারের উপর ধারাবাহিক চেইন কোর্স “মাইক্রোকন্ট্রোলার গুরু” । এই কোর্সে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণ করুন আর হয়ে যান, একজন মাইক্রোকন্ট্রোলার গুরু।  টেকটিউনস কাপনাকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করবে , শুধুমাত্র আপনার ইচ্ছা আর সক্রিয় অংশগ্রহণই আপনাকে এ বিষয়ে অভিজ্ঞ করে তুলবে, আর সবাই আপনাকে দেখে বলবে মাইক্রোকন্ট্রোলার গুরু । তাহলে মাইক্রোকন্ট্রোলার গুরু হওয়ার জন্য আপনি প্রস্তুত তো!

…………………………………………………………………………………………….

আজ এ পর্যন্তই। সবার জন্য শুভকামনা রইলো।